শিরোনাম :

10/trending/recent

Hot Widget

অনুসন্ধান ফলাফল পেতে এখানে টাইপ করুন !

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ত্রাণের নামে প্রতারণার পায়তারা


চাঁপাইনবাবগঞ্জ সংবাদদাতা
সম্প্রতি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বাংলাদেশসহ পৃথিবীটা যেন স্থবির হয়ে পড়েছে। কর্মহীন হয়ে পড়েছে দেশেরও লাখ লাখ মানুষ।
এরই মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে ত্রাণসামগ্রী দেয়ার নামে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে।
এ নিয়ে শনিবার দিবাগত রাতে শিবগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম।
এছাড়াও, উজিরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি দুরুল হোদা প্রতারক চক্রের রহস্য উদঘাটন শাস্তি প্রদানের লক্ষ্যে জিডি করেছেন।
শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম শাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
সাধারণ ডায়েরি (জিডি) সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে জালমাছমারীর জিকে ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ নজমুল কবির মুক্তা, সাধারণ সম্পাদক আতিকুল ইসলাম টুটুল খাঁন, উজিরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি দুরুল হোদা, ছত্রাজিতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানী ছবি ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক তোসিকুল ইসলাম টিসুসহ স্থানীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে জিকে ফাউন্ডেশনের পৃষ্ঠপোষকতায় ত্রাণসামগ্রী বিতরণের বিষয়ে আলোচনা করছিলেন। ওই সময়ে চেয়ারম্যানের মোবাইল নম্বরে কল করে রেড ক্রিসেন্টের অফিসার পরিচয়ে একজন ফোন করেন।
রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি থেকে কিছু ত্রাণ বিতরণ করা হবে বলে তিনি জানান।  পাশাপাশি যাদেরকে ত্রাণ দেয়া হবে তাদের তালিকা চেয়ারম্যানের নিকট চান। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান উজিরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি দুরুল হোদাকে ওই নম্বরের ফোন দিয়ে বিস্তারিত জানতে বলেন।
এর প্রায় দুই ঘণ্টা পর দুরুল হোদা চেয়ারম্যানকে জানান, ত্রাণ দেয়ার নামে রেড ক্রিসেন্ট অফিসার কিছু টাকা চায়। চেয়ারম্যান পরবর্তীতে দুরুল হোদাকে টাকা দিতে নিষেধ করেন এবং যারা ত্রাণ দেয় তারা কোন অর্থ দাবি করতে পারেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন।  
এ ব্যাপারে, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক তোসিকুল ইসলাম টিসু বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে যারা ত্রাণ দেয়ার নামে দরিদ্র মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে তাদের মুখোশ উন্মোচন করে দ্রুত শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক।
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে সন্দেহ করা হচ্ছে, রেড ক্রিসেন্টের নামধারী ওই ব্যক্তি প্রতারক চক্রের সদস্য। এর পরবর্তী কোন বিষয়ে আমি অবগত নই। অথচ সাম্প্রতিক সময়ে কিছু গণমাধ্যমসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কতিপয় লোক প্রতারিত হয়েছে মর্মে প্রচারণা চলছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমার স্পষ্ট বক্তব্য- যারা প্রতারিত হয়েছেন, তাদের কাছ থেকে অভিযোগ গ্রহণ করে তদন্ত সাপেক্ষে প্রতারক চক্রের মূল রহস্য উদঘাটন করে আইনগত শাস্তি দেওয়া হোক।’
শিবগঞ্জ থানার ওসি শামসুল আলম শাহ জানান, প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে রেড ক্রিসেন্টের কথা বলে ত্রাণ দেয়ার নামে প্রতারণার পায়তারা করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

মিম্পা/বুলাকী


from Risingbd Bangla News https://ift.tt/2KWfC5I
via IFTTT

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Below Post Ad