যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়ছে পাটুরিয়া ফেরিঘাটে - Purbakantho

শিরোনামঃ

শুক্রবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২২

যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়ছে পাটুরিয়া ফেরিঘাটে

ঈদের বাকী আর মাত্র ৩/৪ দিন। এরই মধ্যে ছুটি হয়েছে অনেক অফিস আদালতের। ঈদের ছুটি প্রিয়জনের সঙ্গে উপভোগ করতে ঘরমুখো মানুষের চাপ বাড়ছে পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায়।
মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার পাটুরিয়া ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার কয়েক লাখ মানুষের। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ঘরমুখো এসব মানুষের চাপ বাড়ছে পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায়।

তবে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের মানিকগঞ্জের প্রায় ৩৬ কিলোমিটার অংশে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনো কোন সড়ক দুর্ঘটনা বা যানজটের তথ্য পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ৮টা পর্যন্ত পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় নৌ-রুট পারাপারের জন্য অপেক্ষামান রয়েছে ছোট বড় মিলে দুই শতাধিক যানবাহন। তবে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে পর্যাপ্ত ফেরির ব্যবস্থা থাকায় ভোগান্তিবিহীন নৌ-রুট পারাপারের সুযোগ পাচ্ছে ঘাট এলাকায় আগত যাত্রী ও যানবাহন শ্রমিকেরা।

পাটুরিয়া ফেরিঘাটের তিন নাম্বার ঘাট পন্টুন এলাকায় আলাপ হলে নাসির হোসেন নামের যশোরগামী এক যাত্রী বলেন, অন্যান্য সময়ের চেয়ে এবারের ঈদ যাত্রা অনেকটাই আরামদায়ক হয়েছে। মহাসড়কে কোন ভোগান্তি হয়নি। ঘাট এলাকায় ঘণ্টা খানেক অপেক্ষার পরই ফেরিতে উঠার সুযোগ মিলেছে। এতে করে এবারের ঈদ যাত্রা ভোগান্তিবিহীন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সেলফি পরিবহনের চালক আনোয়ার সাদাত বলেন, বিকেল পর্যন্ত গাবতলী টার্মিনালে তেমন ভিড় হয়নি। তবে যাত্রীদের জন্য অপেক্ষাও করতে হচ্ছে না। পাঁচ মিনিটেই গাড়ি ভর্তি যাত্রী হয়ে যাচ্ছে। মহাসড়কের অবস্থা ভালো থাকায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই ঘাট এলাকায় পৌঁছানো যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের বাণিজ্য বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক মহিউদ্দিন রাসেল বলেন, পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় যাত্রী ও যানবাহনের কিছুটা চাপ বাড়ছে। তবে তা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। যাত্রী ও যানবাহন পারাপারে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে ছোট-বড় মিলে মোট ২০টি ফেরি চলাচল করছে।

ছোট ও বড় গাড়ি পারাপারের জন্য পৃথক ঘাট পন্টুনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অল্প কিছু সময় অপেক্ষার মধ্যে যাত্রী ও যানবাহন শ্রমিকেরা ফেরিতে উঠার সুযোগ পাচ্ছে বলে জানান তিনি।

এদিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বিষয়ে জানতে চাইলে গোলড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, সন্ধ্যার পর গাড়ির চাপ কিছুটা বাড়ছে। তবে মহাসড়ক এলাকায় কোন যানজট নেই। মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন করেছে জেলা পুলিশ সুপার। `এছাড়া হাইওয়ে পুলিশের টহল কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানান তিনি।,

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন