শিরোনাম :

10/trending/recent

Hot Widget

অনুসন্ধান ফলাফল পেতে এখানে টাইপ করুন !

Ads

জার্মানিতে বিয়ের আগের রাতের অদ্ভুত রীতি শুনলে ভিরমি খাবেন আপনিও!

পূর্বকন্ঠ ডেস্ক : বেশির ভাগ দেশ বা তাদের সংস্কৃতিই বিয়ের অনুষ্ঠান ধুমধাম করে করার পক্ষে। তা সেসবের যেমন রয়েছে নানা উপাচার, তেমনই রয়েছে নিজস্ব কিছু রীতিরেওয়াজও। যা বহু ক্ষেত্রেই বেশ অদ্ভুত এবং মজার। বিয়ের আগের রাতে কাপ-ডিশ ভেঙে দেখেছেন কখনও! জার্মানির বাসিন্দাদের জন্য এ কিন্তু অবশ্য পালনীয় এক রীতি। তাদের কাছে বেশ জনপ্রিয় এই পল্টারবেন্ড অনুষ্ঠান। কী কী হয় সেখানে? শুনে নিন।

বাঙালি বিয়েতেও নানা ধরনের মজার কাণ্ড আমরা দেখতে পাই? বধূবরণের পরে আংটি খেলা বলুন কিংবা নতুন কনের জ্যান্ত মাছ ধ'রা! তবে সেসব মজাকে ছাপিয়ে যাবে জার্মানির এই রেওয়াজ। সেখানে নববিবাহিতদের জন্য রয়েছে অদ্ভুত মজার এক অনুষ্ঠান। তা এতটাই অদ্ভুত, যা শুনলে ভিরমি খাবেন আপনিও।
বিয়ের আগের দিন আইবুড়োভাতের অনুষ্ঠান, মেহেন্দি কিংবা সঙ্গীত তো দেখেছেন। গল্পে, সিনেমায় ব্যাচেলরস পার্টি দেখেও অভ্যস্ত আমরা। তবে জার্মানির এই বিবাহ রীতি অবাক করার মতোই। স্থানীয় ভাষায় একে বলা হয় পল্টারবেন্ড। তা কি এই রীতি?

বিয়ের ঠিক আগের দিন রাতে কনের বাড়ির সামনে প্রচুর কাচ ও পোর্সেলিনের জিনিসপত্র ছুঁড়ে ছুঁড়ে ভাঙেন কনের বন্ধুবান্ধবরা। থালা-বাটি-গ্লাস থেকে ফুলদানি, বাদ যায় না কোনও কিছুই। এই ভেঙে যাওয়া কাচের জিনিসপত্র সৌভাগ্য আনতে সাহায্য করে বলেই বিশ্বাস জার্মানির বাসিন্দাদের। এখানেই শেষ নয়। এই যে একরাশ কাচের ভাঙা বাসনপত্তর পড়ে রইল বাড়ির সামনে। ভাবছেন নিশ্চয়ই, সেসব পরিষ্কার করার আলাদা লোক রয়েছে। আজ্ঞে না। এসব জঞ্জাল সাফ-সাফাই করতে হবে বরকনেকেই। আর সেটাকেও বিয়ের অঙ্গ বলেই মনে করা হয় সেখানে। জার্মানির প্রায় সমস্ত বিয়ের ক্ষেত্রেই এই পল্টারবেন্ড পালন করা হয় সারম্বরে।

পল্টারবেন্ডের মতোই বিয়েকে কেন্দ্র করে আরও বেশ কিছু অদ্ভুতুরে নিয়ম জার্মানিতে পালন করা হয় । যেমন ধরুন, বিয়ের পর ওড়নার নিচে বরকনের আজব নাচ কিংবা বিয়ের অনুষ্ঠানে বর-কনের কাঠ চেরাই, এমন অনেক ধরনের অদ্ভুত রীতিনিয়ম রয়েছে এ দেশে। বর-কনে ভবিষ্যৎ জীবনে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সব কাজ করতে পারবে কিনা বা তাঁদের পারষ্পরিক বোঝাপড়া কেমন হবে, তা নির্ধারণ করতেই এই কাঠ চেরাইয়ের রীতি পালন করা হয়। ‘জার্মানির বিয়ে উপলক্ষে এসব নিয়ম কিন্তু আদতেই বেশ মজার এবং আজগুবি।’ ‘সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন।’

from MTnews24 https://ift.tt/w6o2nJz

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Below Post Ad

Ads Section