শিরোনাম :

10/trending/recent

Hot Widget

অনুসন্ধান ফলাফল পেতে এখানে টাইপ করুন !

গোলের ঘরে ২-এর বেশি না থাকাই পোড়াবে লিভারপুলকে

এই গোলের পর অ্যানফিল্ডে লিভারপুল সমর্থকদের গান আর থামেনি। দুই গোলে যে কিছুটা স্বস্তি পেল অলরেডরা! এই এক গোলে অনেক রেকর্ডও হয়েছে – কিছু লিভারপুলের, কিছু মানের ব্যক্তিগত।
এই এক গোলেই চ্যাম্পিয়নস লিগে ৪৫০তম গোলের মাইলফল পেরিয়ে গেছে লিভারপুল, সেটি ইউরোপিয়ান কাপ যুগ আর বর্তমান চ্যাম্পিয়নস লিগ যুগ মিলিয়ে, মূল পর্ব আর বাছাইপর্বের গোল যোগ করে।

আর মানের রেকর্ড? এ নিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে মানের গোল হলো ১৪টি, সেনেগালিজ ফরোয়ার্ড ছুঁয়েছেন আফ্রিকান খেলোয়াড়দের মধ্যে চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে সবচেয়ে বেশি গোলের করার রেকর্ড। এর আগে রেকর্ডটি কার ছিল? দিদিয়ের দ্রগবা, চেলসির আইভরিয়ান কিংবদন্তিরও গোল ১৪টি। ১১ গোল নিয়ে তালিকার তিনে সালাহ।

দুই গোলের পরও লিভারপুলের দাপটই থেকেছে। ভিয়ারিয়াল এরপর একটু-আধটু চেষ্টা করেছে বটে, তবে তাতেও বিশেষ লাভ হয়নি। পরিসংখ্যানই বলে সে কথা, ম্যাচে লিভারপুলের গোলপোস্টে কোনো শটই রাখতে পারেনি, সব মিলিয়েই শট নিতে পেরেছে মাত্র একটি।

ফুটবলের পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট অপটা জানাচ্ছে, ২০০৩-০৪ সালে অপটার যাত্রা শুরুর পর থেকে মোট শট (১) আর প্রতিপক্ষের গোলপোস্টে শট (০) – দুই দিকেই নেতিবাচক রেকর্ড ভিয়ারিয়ালের। `নতুন রেকর্ড অবশ্য গড়েনি, ২০০৯-১০ মৌসুমে বার্সেলোনার বিপক্ষে জোসে মরিনিওর ইন্টার মিলানের রেকর্ডই ছুঁয়েছে মাত্র।,
http://dlvr.it/SPMpGt

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Below Post Ad