ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট, থাকবে আরও ৩ দিন - Purbakantho

শিরোনামঃ

বৃহস্পতিবার, ৫ মে, ২০২২

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট, থাকবে আরও ৩ দিন

ঢাকা: নারায়ণগঞ্জে লাঙ্গলবন্ধ সেতুর সংস্কারের কারণে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সৃষ্টি হয়েছে যানজট। চট্টগ্রাম থেকে ঢাকামুখী লেনে সংস্কার চলায় সেটা পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ফলে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামমুখী একটি লেন দিয়ে উভয়মুখী যানবাহন চলাচল করছে। এতে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। 

আজ বৃহস্পতিবার (৫ মে) সেতু সংস্কারের কাজ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে গাজীপুর হাইওয়ে পুলিশ এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ। তাই কালও যানজটের আশঙ্কা রয়েছে। একইসঙ্গে ৬ ও ৭ মে একই সেতুর বিপরীত পাশে সংস্কার কাজ করা হবে বলেও জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ফলে ওই দুই দিনও যানজট থাকবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বুধবার (৪ মে) সারাবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর জোনের হাইওয়ে পুলিশের পুলিশ সুপার (এসপি) আলী আহমেদ খান। তিনি বলেন, ‘আজ সকালে আমাদের সড়ক ও জনপথ কর্তৃপক্ষ জরুরি ভিত্তিতে লাঙ্গলবন্ধ সেতু সংস্কারের তথ্য জানিয়েছে। আমরা সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক দেশের গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়ক। এটিকে দেশের ইকোনমিক লাইফলাইনও বলা যেতে পারে। সড়ক বন্ধ করে এক লেইনে কাজ করার কারণে গাড়ি কিছুটা ধীরগতিতে যাচ্ছে। আর তাই পেছনে জট লাগছে।’

আলী আহমেদ খান বলেন, ‘একদিকে আগামীকাল (বৃহস্পতিবার, ৫ মে) ইদের সরকারি ছুটি শেষে অফিস ও ব্যাংক খুলবে। তাই আজ অনেকেই ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। আবার অন্যদিকে সোনারগাঁও ও পানামা সিটিতে আসা দর্শনার্থীদের গাড়িগুলোও আছে। মূলত এ কারণে গাড়ির জট লেগে আছে। তবে দ্রুতই পরিস্থিতির উন্নতি ঘটবে বলে আশা করছি।’

সরেজমিনে দেখা যায়, ইদের বন্ধে সোনারগাঁও ও পানামা সিটিতে ঘুরতে যাওয়া দর্শনার্থীদের বিভিন্ন গাড়ির পাশাপাশি কর্মস্থলে যোগ দেওয়ার জন্য ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেওয়া যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাক-কাভার্ডভ্যানও আটকে গেছে যানজটে। মহাসড়কের একপাশে মদনপুর এলাকা ও অন্যপাশে মেঘনা সেতু পর্যন্ত বিস্তৃত হয়েছে যানজট। আর এই যানজটের কারণে বিভিন্ন রুটে পরিবহন সংকট সৃষ্টি হয়েছে অভিযোগ যাত্রীদের।

বুধবার (৪ মে) ঘড়ির কাঁটায় যখন সময় দুপুর ১টা তখন রাজধানীর গুলিস্তানে মাওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামের সামনের সড়কে টিকিট কেটে বাসের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা যায় শতাধিক যাত্রীকে। এই সড়কে থাকা কুমিল্লার মেঘনাগামী রূপান্তর মেঘনা সুপার সার্ভিসের কাউন্টারের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সকাল থেকে সেতুর সংস্কার কাজ চালু হওয়ার কারণে রাস্তায় গাড়ি আটকে গেছে। তাই টিকেট বিক্রি করলেও গাড়ি পাওয়া যাচ্ছে না সময় মতো। ঢাকায় গাড়ি আসতে না পারলে ছাড়াও তো যাচ্ছে না। গাড়ি না পেয়ে অনেকে টিকিটও ফেরত দিয়ে যাচ্ছে।

ঢাকা থেকে মেঘনাগামী দোয়েল পরিবহনের চালক রাসেল আহমেদ সারাবাংলাকে বলেন, ‘ইদের আগে ও ইদের দিন যাত্রীদের চাপ ছিল। পর্যাপ্ত বাস থাকার কারণে কোনো দিকেই সমস্যা হয়নি। দীর্ঘ সময় ধরে যাত্রীদের লাইনেও দাঁড়িয়ে থাকতে হয়নি। তবে আজ একদিকে গাড়ি আটকে যাওয়ায় সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে।’

কুমিল্লা থেকে ঢাকাগামী এশিয়া এয়ারকন পরিবহনের যাত্রী রাজীব চৌধুরী সারাবাংলাকে বলেন, ‘আগামীকাল অফিস খোলা। তাই আজকেই ফিরতে হচ্ছে ঢাকায়। সেই দুপুর ২টা থেকে জ্যামে আটকে আছি। প্রায় ২ ঘণ্টা পার হলেও বেশিদূর এগুতে পারিনি।’

এশিয়া এয়ারকন পরিবহনের চালক মো. মিলন সারাবাংলাকে বলেন, ‘শুধু তো আজকে না, শুনলাম কালসহ আরও তিন অর্থাৎ মোট চারদিন এই রাস্তার কাজ চলবে। যদি তাই হয় তবে প্রচুর ভোগান্তি পোহাতে হবে সবাইকে।’

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নবির হোসেন বলেন, ‘লাঙ্গলবন্ধ সেতুটির বিভিন্ন অংশে সমস্যা দেখা দেওয়ায় এটি সংস্কার করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ঢাকামুখী লেনে সংস্কার শুরু হয়েছে। এরপরে চট্টগ্রামমুখী লেনের সংস্কার কাজ করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘ঢাকামুখী লেনটি বন্ধ থাকায় এখন একটি লেন দিয়ে উভয়মুখী যানবাহন চলাচল করছে। ফলে যানবাহনের স্বাভাবিক গতি কমে যাচ্ছে। এ জন্য উভয়পাশেই কিছুটা যানজট দেখা দিয়েছে। `এই সংস্কার কাজ সম্পন্ন হতে তিন দিন সময় লাগতে পারে।’

এদিকে, সড়ক ও জনপথ বিভাগের দেওয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ৪ মে থেকে ৮ মে পর্যন্ত লাঙ্গলবন্ধ সেতুর মেরামত কাজ চলবে। `ইদের পরে প্রথম দুই দিন ঢাকামুখী ও পরবর্তী দুই দিন চট্টগ্রামমুখী সড়কের কাজ করা হবে।,

তবে যানজট এড়াতে সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে ভারী যানবাহনকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ঘুরে যেতে এবং হালকা যানবাহনকে মদনপুর হয়ে নবীগঞ্জ-কাইকারটেক সড়ক ব্যবহার করতে বলা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।,


from  Sarabangla https://ift.tt/q82m4IM

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন