নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক হলে ভোটের শেষে মারামারি হয়: সিইসি - Purbakantho

শিরোনামঃ

বৃহস্পতিবার, ২৮ জুলাই, ২০২২

নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক হলে ভোটের শেষে মারামারি হয়: সিইসি

ঢাকা: প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, নির্বাচন যখন তীব্র প্রতিযোগিতামূলক ও হাড্ডাহাড্ডি হয় তখন ভোটের শেষেই মারামারি হয়।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সংলাপের দশম দিনে গণফোরামের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।,


প্রধান নির্বাচন কমিশনার সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল এর সভাপতিত্বে সংলাপে ইসি কমিশনার মো. আলমগীর, রাশেদা সুলতান, আনিছুর রহমান ও বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) আহসান হাবিব খান ও ইসি সচিব হুমায়ন কবির খোন্দকার উপস্থিত ছিলেন।,


সিইসি বলেন, ‘যখন হাড্ডাহাড্ডি নির্বাচন হয় তখন ভোটের শেষে একটা মারামারি হয়। কালকেও হয়েছে, একটি বাচ্চা মারা গেছে। আমি রাত ১০টায় ফোন করেছি ডিসি এসপিকে, ঘটনাটা কি হলো। ইলেকশনটা শেষ হয়ে গিয়েছিল। শেষ হয়ে যাওয়ার পরই মেম্বার কেন্ডিডেটরা একজনের ওপর হামলা করে বসেছে।,


রাজনৈতিক দলগুলো অনেক বড় উল্লেখ করে হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘দেশের রাজনীতি আপনারা নিয়ন্ত্রণ করেন। আমরা কখনো রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না। আমরা শুধু ভোটের বাক্স একটা ভোটার গিয়ে ওখানে কাগজটা ফেলবে, দায়িত্বটা সীমিত।,


দেশের রাজনীতির সংস্কৃতির প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘এটাকে ধারণ করা লালন করা উন্নত করার যে দায়িত্ব তা আপনাদেরই৷’


দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কর্মপদ্ধতি ঠিক করতে ভোটের দেড় বছর আগেই রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করছে ইসি। এ লক্ষ্যে ৩৯টি রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। এই সংলাপে বিএনপিসহ বেশ কয়েকটি সমমনা দল ইসির এ সংলাপ বর্জন করেছে।,


সংলাপের দশম দিনে এসে ৩৬টি দলের সঙ্গে সংলাপ হওয়ার কথা থাকলেও সর্বশেষ বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি ‘না’ করে দেয়ায় বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সংলাপে অংশ নেয়া দলের সংখ্যা দাঁড়াবে ২৬টি। সংলাপ বর্জন করেছে ৯টি রাজনৈতিক দল। এ ছাড়া ২টি দল সময় বাড়ানোর জন্য অনুরোধ করেছে। এরপর আরও ২টি দলের সঙ্গে ইসির সংলাপে বসার কথা রয়েছে, যা চলবে এ মাসের শেষ দিন ৩১ জুলাই পর্যন্ত।,



from Sarabanglahttps://ift.tt/JlTOLRY

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন