খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগে এগিয়ে রংপুর - Purbakantho

শিরোনামঃ

মঙ্গলবার, ২৩ আগস্ট, ২০২২

খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগে এগিয়ে রংপুর

ঢাকা: আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে দেশ এগিয়েছে অনেক দূর। কিন্তু এখনো খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ করে ১ দশমিক ২৩ শতাংশ পরিবারের মানুষ। অর্থাৎ ১০০টি পরিবারের মধ্যে ১ দশমিক ২৩টি পরিবারে পায়খানা সুবিধা নেই। এই হার সবচেয়ে বেশি রংপুর বিভাগে। আর সবচেয়ে কম ঢাকা বিভাগে।,

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর জনশুমারি ও গৃহগণনা-২০২২ এর প্রাথমিক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এমন তথ্য। তবে দেশের বেশিরভাগ মানুষ পায়খানা করার পর ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে নিরাপদ নিষ্কাশন করছে বলেও উঠে এসেছে প্রতিবেদনে।,


পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড.শামসুল আলম সারাবাংলাকে বলেন, স্যানিটেশনে আমাদের অগ্রগতি অনেক ভালো। কিন্তু দেশের চরাঞ্চলে এখনো মানুষ খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ করে বেশি। এছাড়া দেশে তো দরিদ্র ও অতিদরিদ্র মানুষ আছে। সেই সঙ্গে ভাসমান মানুষও এর সঙ্গে যুক্ত আছে। সরকারের নানামুখী পদক্ষেপ নেওয়া আছে। ধীরে ধীরে এই হার কমে আসবে বলেই আশা করছি। বিবিএসের প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে দেখা যায়, দেশে কাঁচা, খোলা ও ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ৪ দশমিক ০৭ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে ৪ দশমিক ০৮ শতাংশ পরিবারে। স্ল্যাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ২১ দশমিক ৭২ শতাংশ পরিবারে। ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে ঠিকমতো নিষ্কাশন করা হয় না ১২ দশমিক ৮৬ শতাংশ পরিবারে এবং ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে নিরাপদ নিষ্কাশন হয় ৫৬ দশমিক ০৪ শতাংশ পরিবারে।,

 

প্রতিবেদন অনুযায়ী বিভাগসমূহের ল্যাট্রিন ব্যবস্থা

রংপুর: রংপুর বিভাগে সবচেয়ে বেশি মানুষ খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ করে। এই বিভাগের ৪ দশমিক ৩১ শতাংশ পরিবারের পায়খানা নেই। কাঁচা, খোলা ও ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ৮ দশমিক ৬৪ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে ৪ দশমিক ২১ শতাংশ পরিবারে। স্ল্যাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ২৭ দশমিক ৪৫ শতাংশ পরিবারে।,


সিলেট: দ্বিতীয় অবস্থান সিলেট বিভাগ। এ বিভাগের ২ দশমিক ৬৫ শতাংশ পরিবারে ল্যাট্রিন নেই। অর্থাৎ এসব পরিবারের মানুষ খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ করে। এ বিভাগে কাঁচা, খোলা ও ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ৯ দশমিক ৬৬ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে ৮ দশমিক ৩৭ শতাংশ পরিবারে। স্লাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ১৫ শতাংশ পরিবারে। ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে ঠিকমতো নিষ্কাশন করা হয় না ১৭ দশমিক ৯৭ শতাংশ পরিবারে এবং ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে নিরাপদ নিষ্কাশন করে ৪৬ দশমিক ৩৫ শতাংশ পরিবার।,


রাজশাহী: এই তালিকায় রাজশাহীর অবস্থান তৃতীয়। এ বিভাগের ১ দশমিক ৫৬ শতাংশ পরিবারে ল্যাট্রিন নেই। অর্থাৎ এসব পরিবারের মানুষ খোলা আকাশের নিচে বসবাস করে। এ বিভাগে কাঁচা, খোলা ও ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ৫ দশমিক ০৭ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে চার দশমিক ০১ শতাংশ পরিবারে। স্ল্যাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ২২ দশমিক ৬৭ শতাংশ পরিবারে। ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে ঠিকমতো নিষ্কাশন করা হয় না ১১ দশমিক ৩৬ শতাংশ পরিবারে এবং ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে নিরাপদ নিষ্কাশন হয় ৫৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ পরিবারে।,


ময়মনসিংহ: এই বিভাগের ১ দশমিক ৫৫ শতাংশ পরিবারের মানুষ খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ করে। কাঁচা, খোলা বা ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ৬ দশমিক ৮৭ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে ৮ দশমিক ৬৫ শতাংশ পরিবারে। স্ল্যাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ২৬ দশমিক ০১ শতাংশ পরিবারে।,


চট্টগ্রাম: এ বিভাগে শূন্য দশমিক ৯০ শতাংশ পরিবারের মানুষ খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ করে। কাঁচা বা খোলা বা ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ২ দশমিক ৩৫ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে তিন দশমিক ৭১ শতাংশ পরিবারে। স্ল্যাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ২০ দশমিক ৩৫ শতাংশ পরিবারে।,


খুলনা: এ বিভাগে শূন্য দশমিক ৩৪ শতাংশ পরিবারের মানুষ খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ করে। এই বিভাগে কাঁচা বা খোলা বা ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ৪ দশমিক ৫১ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে ৩ দশমিক ৭৯ শতাংশ পরিবারে। স্লাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ২৪ দশমিক ৯০ শতাংশ পরিবারে।,


বরিশাল: এ বিভাগে শূন্য দশমিক ৩০ শতাংশ পরিবারের মানুষ খোলা আকাশের নিচে মল ত্যাগ করে। কাঁচা বা খোলা বা ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ১ দশমিক ৮১ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে ৫ দশমিক ২৭ শতাংশ পরিবারে। স্ল্যাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ৪১ দশমিক ৯৫ শতাংশ পরিবারে।,


ঢাকা: সবচেয়ে কম ঢাকা বিভাগে শূন্য দশমিক ২৮ শতাংশ পরিবারের মানুষ খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ করে। এই বিভাগে কাঁচা বা খোলা বা ঝুলন্ত ল্যাট্রিন রয়েছে ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ পরিবারে। এছাড়া স্ল্যাব ছাড়া পিট ল্যান্ট্রিন বা উম্মুক্ত পিট ল্যাট্রিন আছে ২ দশমিক ১৭ শতাংশ পরিবারে। স্ল্যাবসহ পিট বা ভেন্টিলেটেড ইমপ্রুভ ল্যাট্রিন আছে ১৫ শতাংশ পরিবারে। ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে ঠিকমতো নিষ্কাশন করা হয় না ১১ দশমিক ৭৭ শতাংশ পরিবারে এবং ফ্লাশ করে বা পানি ঢেলে নিরাপদ নিষ্কাশন হয় ৬৯ দশমিক ৩৫ শতাংশ পরিবারে।,


প্রকল্প পরিচালক দিলদার হোসের সারাবাংলাকে বলেন, ২০১১ সালের আদমশুমারি ও গৃহগণনায় এ বিষয়টি নিয়ে তেমন কোনো তথ্য ছিল না। কিন্তু এবার মাঠপর্যায় থেকে এ তথ্য নিয়ে আসা হয়েছে। এটি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অগ্রগতির ক্ষেত্রে কাজে লাগবে।,



from Sarabangla https://ift.tt/LMovzsi

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন