‘লোডশেডিংয়ের ভোগান্তি থাকবে আরও ২ মাস’ - Purbakantho

শিরোনামঃ

শুক্রবার, ৫ আগস্ট, ২০২২

‘লোডশেডিংয়ের ভোগান্তি থাকবে আরও ২ মাস’

ঢাকা: জ্বালানি সংকটের কারণে বিদ্যুৎ সরবরাহে যে ঘাটতি দেখা দিয়েছে তা আগামী সেপ্টেম্বরের আগে কাটছে না। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, ‘লোডশেডিং কমিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে, হয়তো সেপ্টেম্বর থেকে পরিস্থিতি উন্নতি হবে।’

শুক্রবার (৫ আগস্ট) বারিধারার নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে ২০০৯ সালের দিকে ১২ থেকে ১৩ ঘন্টা পর্যন্ত লোডশেডিং থাকত। সে পরিস্থিতি আমরা ধীরে ধীরে দূর করেছি। আমরা স্বল্প, মধ্য এবং দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি বিদ্যুত খাত নিয়ে। সম্প্রতি জাপানের সহায়তায় আরেকটা পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।’


এখন বিশ্বব্যাপী জ্বালানির সংকট এবং উর্ধ্বমুখী মূল্য পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যে কারণে আমাদের লোডশেডিং করতে হচ্ছে। এটা সাময়িক। প্রাথমিক ধকল আমরা সামলে নিতে পেরেছি’— বলেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী।,


নসরুল হামিদ আরও বলেন, যেকোনো প্রতিষ্ঠান বা বাসা বাড়ি তাদের সোলার প্যানেল ব্যবহার করে জাতীয় গ্রিডের সঙ্গে সংযুক্ত করলে বিদ্যুৎ খরচ ২০ শতাংশ কমে আসবে। এর বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বলেন, যে সোলার প্যানেল ভবনে ব্যবহার করা হবে সেখান থেকে যে বিদ্যুৎ উৎপন্ন হবে তা সরকারকে দিয়ে দেবেন। আর সেটি যোগ হবে জাতীয় গ্রিডে। আর আপনার মোট বিদ্যুৎ ব্যবহার থেকে সেই পরিমাণ বিদ্যুতের বিল মাইনাস করা হবে। এতে ২০ শতাংশের বেশি বিল বাঁচানো সম্ভব।,

তিনি বলেন, এখন প্রযুক্তি অনেক কাজ সহজ ও সময় কমিয়ে দিয়েছে। আগে যে নতুন প্রযুক্তি আসতে কয়েক দশক সময় লেগে যেত এখন তা দ্রুত কয়েক মাসের মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। আর এ কারণে আমরা তা ব্যবহারের প্রস্তুতি নিচ্ছি। নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট, হাইড্রোজেন প্ল্যান্ট সামনে হয়ত আরও নতুন কিছু আসবে। সেসব ব্যবহারের জন্য আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি।,


এ সময় বিদ্যুতের দাম বাড়ানো নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)।,



from Sarabangla https://ift.tt/EHa2NXU

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন