আগামী নির্বাচনে সর্বোচ্চ ১৫০ আসনে ইভিএম - Purbakantho

শিরোনামঃ

মঙ্গলবার, ২৩ আগস্ট, ২০২২

আগামী নির্বাচনে সর্বোচ্চ ১৫০ আসনে ইভিএম

ঢাকা: আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সর্বোচ্চ ১৫০ আসনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ এ তথ্য জানিয়েছেন। মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) নির্বাচন কমিশনের এক বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অনধিক ১৫০ আসনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে।,


তিনি বলেন, আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অনধিক ১৫০টি আসনে ইভিএম ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। সকল দলের মতামত আমলে নিয়েই নির্বাচন কমিশন ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সুনির্দিষ্টভাবে কতটি আসনে ইভিএম ব্যবহার হতে পারে? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সর্বোচ্চ ১৫০টি এবং সর্বনিম্ন ১টি আসনেও ইভিএম ব্যবহার হতে পারে।,


ইভিএম ব্যবহার নিয়ে অনেক রাজনৈতিক দলই সংলাপসহ বিভিন্ন সময় বিরুপ মন্তব্য করেছে। সেসব উপেক্ষা করে জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, এটা কমিশনের সিদ্ধান্ত। সবকিছু বিবেচনা করেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।,


বর্তমানে ইসির ইভিএম ব্যবহারের সক্ষমতার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ৭০ থেকে ৭৫টি আসনে ইভিএম ব্যবহার করার সক্ষমতা রয়েছে। যদি ১৫০টি আসনে ইভিএম ব্যবহার করতে হয়, তাহলে নতুন করে মেশিন কেনার প্রয়োজন হতে পারে বলেও জানান তিনি।,


এর আগে গত ১৭ থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত ৩৯টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সংলাপে অংশ নেওয়া দলগুলোর বেশিরভাগই ইভিএম ব্যবহারের বিরুদ্ধে মতামত দেয়। তবে বিপরীত মেরুতে অবস্থান নেয় আওয়ামী লীগসহ কয়েকটি সমমনা দল। ক্ষমতাসীন দলটির পক্ষ থেকে ৩০০ আসনেই ইভিএমের মাধ্যমে ভোট করার দাবি জানানো হয়।,


নির্বাচন কমিশনের সংলাপ সূত্রে জানা যায়, অংশ নেওয়া ২৬টি দলের মধ্যে ১৯টি ইভিএম নিয়ে প্রশ্ন তোলে। তাদের কেউ কেউ ইভিএমের বিপক্ষে, কেউ কেউ আবার আরও পরীক্ষা নিরীক্ষা করে ব্যবহারের পক্ষে ছিল। কেউবা আবার শুধুমাত্র স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের পরামর্শ দেয়। সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ইভিএম চায় না বলে সংলাপে জানায়।,




from Sarabangla https://ift.tt/SrEYPWk

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন