প্রফেসর মাসুদা এম রশীদ চৌধুরীর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী - Purbakantho

শিরোনামঃ

মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২

প্রফেসর মাসুদা এম রশীদ চৌধুরীর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদের ৩৪৫ মহিলা আসন-৪৫ সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রফেসর, বীর মুক্তিযোদ্ধা, ড. মাসুদা এম, রশীদ চৌধুরীর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী মঙ্গলবার। ২০২১ সালের এদিনে বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।,


মরহুমার আত্মার মাগফিরাতের জন্য ঢাকা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের বাসভবনে এবং রাউজানের পারিবারিক বাসভবনে পবিত্র কোরআনখানি, মিলাদ মাহফিল এবং দোয়ার আয়োজন করা হয়েছে।,


মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী ২২ জুলাই ১৯৫১ সালে চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার এক সভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম আবুল মনসুর পাকিস্তানের শীর্ষ ব্যবসায়ী, মাতা মৌসুফা মনসুর বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা সংস্থার সভানেত্রী ও চট্টগ্রাম বাওয়া স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা। নানা খাঁন বাহাদুর আবুল মজিদ জিয়াউস সামস্ ব্রিটিশ ইন্ডিয়ান পার্লামেন্টের শিক্ষামন্ত্রী। দাদা খাঁন বাহাদুর টি আহম্মেদ উপমহাদেশের প্রথম মুসলিম ডিপিআই ও ঢাকা ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা।,


পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের বিরোধী দলের নেতা একেএম ফজলুল কবির চৌধুরী’র জ্যেষ্ঠ পুত্রবধূ তিনি। তার স্বামী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডিয়াম সদস্য এডভোকেট এবিএম ফজলে রশীদ চৌধুরী। তিনি পুত্র ব্যারিস্টার সানজীদ রশীদ চৌধুরী এবং কন্যা সানজানার জননী। রাউজানের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী তার দেবর।,


মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগে অধ্যাপনা করেন। এ ছাড়া, তিনি বুয়েটে খন্ডকালীন অধ্যাপনা এবং পিপলস ইউনির্সিটির ডিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।,


বর্ণাঢ্য জীবনের অধিকারীনি এই মহীয়সী নারী এবং অর্জন করেন ৭৬টি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি। ১৯৮৬ সালে ফিলিপাইনস থেকে ১৫ হাজার নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টির কারণে সে দেশের সর্বোচ্চ পদকে ভূষিত হন। সমাজ বিজ্ঞান, নারী উদ্যোক্তা, রাজনীতি, চিত্র কলার উপরে লিখেছেন তিনি ৭৪টি বই।,


১৯৮২ সালে মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে যুক্ত হন। জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক হন। জাতীয় মহিলা পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক, সাধারণ সম্পাদক ও পরবর্তীতে ১৭ বছর জাতীয় মহিলা পার্টির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন।,


১৯৭১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের বিএফএ ছাত্রী থাকাকালীন শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীনের নেতৃত্বে তিনি সরাসরি মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।,




from Sarabangla https://ift.tt/7tIRCGO

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন