‘বাবুল আক্তারের অভিযোগ বাস্তবসম্মত কিনা তদন্ত করা হবে’ - Purbakantho

শিরোনামঃ

রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২২

‘বাবুল আক্তারের অভিযোগ বাস্তবসম্মত কিনা তদন্ত করা হবে’

ঢাকা: পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) বিরুদ্ধে সাবেক এসপি বাবুল আক্তারের অভিযোগ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বাবুল আক্তার যে সব অভিযোগ করেছেন সেগুলো বাস্তবসম্মত কি না, তা তদন্ত করে দেখা হবে।’ তবে পিবিআইয়ের ওপর আমাদের ভরসা আছে বলে জানান তিনি।,


শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরে আয়োজিত এক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন।,


মন্ত্রী বলেন, ‘পিবিআই যতগুলো অনুসন্ধান করেছে সবগুলোই বাস্তবসম্মত এবং তারা অত্যন্ত সূক্ষ্মভাবে এগুলো করেছে। ৩০ বছর আগের খুনের মামলারও তারা আসামি চিহ্নিত করেছে এবং আসামি গ্রেফতার করেছে। পিবিআই ভুল করবে না বলে আমার বিশ্বাস।’


তিনি বলেন, ‘বাবুল আক্তারের বিষয়টা যেহেতু পিবিআইয়ের কাছে তদন্তাধীন, তাই তদন্ত শেষ করার আগে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না। বাবুল আক্তার যে কথাগুলো বলেছেন সেগুলো বাস্তবসম্মত কি না সেটা তদন্ত হলেই বোঝা যাবে।’


যারা তদন্ত করছেন তাদের প্রধানের বিরুদ্ধেই অভিযোগ, সেক্ষেত্রে তদন্তে গাফিলতির সম্ভাবনা আছে কি না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘বাবুল আক্তার অত্যন্ত চতুর মানুষ। কাজেই সে কখন কী বলে সেটা তার ব্যাপার। এখানে আমার মন্তব্য নেই। তদন্তের পরেই সব চলে আসবে।’


উল্লেখ্য, পিবিআই হেফাজতে থাকার সময় নির্যাতনের শিকার হয়েছেন দাবি করে পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদারসহ ৬ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নির্যাতন ও হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইনে মামলার আবেদন করেছেন সাবেক এসপি বাবুল আক্তার। গত ৮ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ ড. বেগম জেবুন্নেছার আদালতে মামলার আবেদন করেন তিনি।,


মামলায় আসামি করা হয়েছে পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদার, সংস্থাটির চট্টগ্রাম জেলা ইউনিটের এসপি নাজমুল হাসান, চট্টগ্রাম মেট্রো ইউনিটের এসপি নাঈমা সুলতানা, সাবেক পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা ও এ কে এম মহিউদ্দিন সেলিম এবং চট্টগ্রাম জেলা ইউনিটের পুলিশ পরিদর্শক কাজী এনায়েত কবিরকে।,


গুম বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘অনেকে গুমের কথা বলে হাজার হাজার। আমি বললাম, লিস্ট দিন। এরপর মানবাধিকার সংস্থা থেকে লিস্ট এল ৭৬ জনের। পরে দেখা গেল এর মধ্যে ১০ জন বিএনপির অ্যাক্টিভিস্ট, যারা বিভিন্নস্থানে অবস্থান করছেন। ৩৫ জনকে আমরা নিজেরাই খুঁজছি, যারা জ্বালাও-পোড়াওয়ের সঙ্গে জড়িত। একজনকে দেখা গেল জেলে রয়েছেন। আরেকবার শুনলাম ৬০০ জন গুম, তাই আমি এর ডিটেইল চাই।’


নির্বাচনকে কেন্দ্র করে থানায় থানায় বিএনপি নেতা-কর্মীদের তালিকা করা হচ্ছে, এমন কথা শোনা যাচ্ছে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তারা অনেক সময় অনেক কথা বলেন। এগুলো বিএনপির আরেকটা কৌশল।’




from Sarabangla https://ift.tt/oiWk36Q

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন