গম কেনা নিয়ে টিআইবির বিবৃতির জবাব দিলো রাশিয়া দূতাবাস - Purbakantho

শিরোনামঃ

বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২

গম কেনা নিয়ে টিআইবির বিবৃতির জবাব দিলো রাশিয়া দূতাবাস

ঢাকা: রাশিয়া থেকে বেশি দামে গম কেনা আর গ্যাস উত্তোলন নিয়ে বাংলাদেশ ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) যে বিবৃতি দিয়েছিলো তার প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির দূতাবাস। প্রতিবাদ পত্রে টিআইবিকে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে পশ্চিমা এনজিওর ধারাবাহিক অপপ্রচার বলে উল্লেখ করা হয়েছে।,

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) পাঠানো প্রতিবাদপত্রে আরও বলা হয়, বৈশ্বিক খাদ্য ও জ্বালানি সংকটে রাশিয়ার নানা ভুল ত্রুটির তথ্য প্রচার করছে পশ্চিমারা। যা এখন ধারাবাহিক অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। বর্তমানে পশ্চিমা গণমাধ্যম ও কিছু এনজিও মস্কোর সঙ্গে বিভিন্ন দেশের বাণিজ্যিক সম্পর্ক নষ্ট করার চেষ্টা করছে। তারা রাশিরার বাণিজ্যিক চুক্তিগুলো বিকৃতভাবে উপস্থাপন করছে। যা কোনোভাবে সঠিক কাজ নয়।,


সম্প্রতি রাশিয়া থেকে গম আমদানির উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ। আগামী ৪ মাসের মধ্যে পাঁচ লাখ টন বাংলাদেশ রাশিয়া থেকে পেতে যাচ্ছে। আবার রাশিয়ান প্রতিষ্ঠান গ্যাজপ্রমের সঙ্গে আরেকটি চুক্তি রয়েছে। যার মাধ্যমে গ্যাজপ্রম ভোলায় তিনটি গ্যাসকূপ খনন করবে। বিষয়গুলোর স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বাংলাদেশ ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।,


সম্প্রতি এ বিষয়গুলো নিয়ে সংস্থাটি একটি বিবৃতি দিয়েছে। সেখানে তারা বলছে, ‘বাজার মূল্যের চেয়ে বেশি দামে রাশিয়া থেকে সরকার গম ক্রয় করছে। এছাড়া রাশিয়ার প্রতিষ্ঠান তিনগুন বাড়তি ব্যয়ে গ্যাজপ্রমের সঙ্গে ভোলায় তিনটি গ্যাসকূপ খননের চুক্তি করেছে সরকার। এ ধরনের সিদ্ধান্ত বেআইনি ও জনস্বার্থ পরিপন্থী। চলমান আর্থিক সংকটের মধ্যেও এ ধরনের কাজ অবাক করেছে।’


এই বিবৃতির প্রতিবাদ খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকেও জানানো হয়েছে। এ বিষয় খাদ্য সচিব সচিব মো. ইসমাইল হোসেন বলেছেন, ‘রাশিয়া থেকে গম কেনা নিয়ে যে অভিযোগ তোলা হচ্ছে তা সঠিক নয়। এই গম ক্রয়ে কোনো ধরনের অনিয়ম বা দুর্নীতি হয়নি। সব ধরনের প্রটোকল মেনেই গম ক্রয় করা হয়েছে।’


তিনি আরও বলেন, ‘এ নিয়ে যারা প্রশ্ন তুলেছেন তারা ভুল ও অসত্য তথ্য দিয়েছেন।,



from Sarabangla https://ift.tt/Xaf2n7H

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

পৃষ্ঠাসমূহ