‘শান্তিপূর্ণ সমাধান না হলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ’ - Purbakantho

শিরোনামঃ

রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২

‘শান্তিপূর্ণ সমাধান না হলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ’

ঢাকা: মিয়ানমারের যুদ্ধ বিমান থেকে বাংলাদেশে ছোঁড়া গোলার বিষয়ে শান্তিপূর্ণ সমাধান চায় বাংলাদেশ। যদি যথোপযুক্ত জবাব এবং শান্তিপূর্ণ সমাধানে না আসে তাহলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ যাবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।


তিনি বলেছেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করছি। আশা করছি তারা জবাব দেবে। না হলে ইউএনএ কথা বলা হবে। সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান কামালা বলেন, ‘মিয়ানমার যা করছে তার ভেতরে কাহিনী আছে।’ কি কাহিনী থাকতে পারে? এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘মিয়ানমারের বিভিন্ন সীমান্তে বিদ্রোহীদের সঙ্গে যুদ্ধ লেগে আছে সেটা সকলেই জানেন। সেই যুদ্ধের গোলা এবার আমাদের সীমান্তের ভেতরে চলে এসেছে। তিনটি গোলা এসে পড়েছে বান্দরবান সীমান্তে। এর মধ্যে দু’টি বিস্ফোরণ হলে একজন নিহত এবং কয়েকজন আহত হন।’

তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে বিজিবি এর প্রতিবাদ জানিয়েছে। বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডাকা হয়েছে। বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীও অবগত আছেন। এভাবে প্রতিনিয়ত ঘটতে থাকলে তো সমস্যা। আমরা বিষয়টির শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই। প্রাথমিক ধাপ শেষ হচ্ছে। দ্বিতীয় ধাপে আমরা জাতিসংঘে যাব। সেখানে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে।’


এর আগে, দুপুরে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ অং কিয়াউ মোকে তলব করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাকে ডেকে এনে কড়া প্রতিবাদ জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া উইংয়ের মহাপরিচালক নাজমুল হুদা। এ সময় তার কাছে কড়া ভাষায় লেখা প্রতিবাদ পত্র তুলে দেওয়া হয়। এ নিয়ে এক মাসের মধ্যে চতুর্থবারের মতো তলব করা হলো সামরিক জান্তাশাসিত দেশটির রাষ্ট্রদূতকে।,


উল্লেখ্য, সম্প্রতি মিয়ানমারের যুদ্ধ বিমান থেকে ছোড়া তিনটি মর্টারের গোলা এসে বাংলাদশের বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি সীমান্তে পড়ে। এতে একজন নিহত হন। আহত হন বেশ কয়েকজন। রাখাইনে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সঙ্গে সরকারি বাহিনীর সংঘাতের ধারাবাহিকতায়ই এমন ঘটনা ঘটছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এসব কিছু মাথায় রেখেই সীমান্তে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করে রেখেছে বাংলাদেশ।,



from  Sarabangla https://ift.tt/LPihJKc

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন