শিরোনাম :

10/trending/recent

Hot Widget

অনুসন্ধান ফলাফল পেতে এখানে টাইপ করুন !

Ads

৩ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি না হতে অনুরোধ ইউজিসির

ঢাকা: ইবাইস ইউনিভার্সিটি, আমেরিকা-বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি ও দ্য ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লা— এই তিনটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে সবাইকে সচেতন করতে সতর্কতামূলক গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি না হতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের অনুরোধ করেছে সংস্থাটি।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) ইউজিসির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এই গণবিজ্ঞপ্তিতে জনস্বার্থে এবং অভিভাবক-ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের জ্ঞাতার্থে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে সবাইকে সতর্ক থাকতে বলেছে।

ইউজিসি বলছে, বর্তমানে ইবাইস বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদিত কোনো ক্যাম্পাস ও ঠিকানা নেই। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ নিয়ে দ্বন্দ্ব ও আদালতে একাধিক মামলা চলছে। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে চ্যান্সেলর তথা রাষ্ট্রপতির নিয়োগ দেওয়া উপাচার্য, উপউপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষসহ কোনো পদেই আইন অনুযায়ী বৈধভাবে কেউ নিয়োগপ্রাপ্ত নেই। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বর্তমানে বৈধ কর্তৃপক্ষ নেই।

ইবাইস বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কারিকুলাম মেয়াদোত্তীর্ণ বিধায় এর সব একাডেমিক প্রোগ্রাম বৈধতা হারিয়েছে উল্লেখ করে ইউজিসি বলছে, ২০১০ সালের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইনের ১৭ ও ১৯ ধারা অনুযায়ী, বৈধ সিন্ডিকেট ও একাডেমিক কাউন্সিল না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়টির একাডেমিক, প্রশাসনিক, আর্থিক, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ও এর ফল এবং একাডেমিক সনদের আইনি বৈধতা নেই।

আমেরিকা-বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিষয়ে বলা হয়েছে, তাদের বর্তমান ঠিকানায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী ফ্লোর স্পেস, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার মতো কোনো ধরনের সুযোগ-সুবিধা নেই। এই বিশ্ববিদ্যালয়েও রাষ্ট্রপতির নিয়োগ দেওয়া উপাচার্য, উপউপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষসহ কোনো পদেই আইন অনুযায়ী বৈধভাবে কেউ নিয়োগপ্রাপ্ত নেই। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বর্তমানে বৈধ কর্তৃপক্ষ নেই। `একইভাবে এই বিশ্ববিদ্যালয়টিরও সব কারিকুলাম মেয়াদোত্তীর্ণ বিধায় সব একাডেমিক প্রোগ্রাম বৈধতা হারিয়েছে।,

ইউজিসি আরও বলেছে, ইবাইস ইউনিভার্সিটির মতো এই বিশ্ববিদ্যালয়েরও একাডেমিক, প্রশাসনিক, আর্থিক, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি, পরীক্ষা ও এর ফল এবং একাডেমিক সনদের আইনি বৈধতা নেই।

দ্য ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লা প্রসঙ্গে ইউজিসি বলছে, তারা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো অস্তিত্বই খুঁজে পায়নি। যে ভবনের পঞ্চম তলায় দ্য ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লার কার্যক্রম পরিচালিত হতো, দুই মাস আগে ভবন কর্তৃপক্ষ সেখানে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। `এই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে সার্টিফিকেট বিক্রির অভিযোগ রয়েছে বলেও জানিয়েছে ইউজিসি।,

এছাড়াও বাকি দুই প্রতিষ্ঠানের সব অনিয়ম ও সীমাবদ্ধতাগুলোও ইউনিভার্সিট অব কুমিল্লার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য বলেও গণবিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করেছে ইউজিসি।,

from Sarabangla |  https://ift.tt/gzY1FOw via IFTTT

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Below Post Ad

Ads Section